মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২১ | ১৩ মাঘ ১৪২৭

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে বন্যা দুর্গত মানুষের পাশে উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর



টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে ২ দফা বন্যায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জের ৮টি ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামের মানুষ এখন পানি বন্ধি হয়ে পড়েছেন, অনেকেই বাড়ি ঘর ছেড়ে বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে গিয়ে উঠেছেন। আবার অধিকাংশ পরিবার রয়ে গেছেন নিজ গৃহে উঁচু মাচা বেঁধে। এমন জনদুর্ভ‚গের সময় দুর্গত মানুষের পাশে দাড়িয়েছে উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর। দক্ষিন সুনামগঞ্জ উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী আব্দুর রব সকারের দিক নির্দেশনায় বন্যা পরিস্থিতিতে দুর্গত মানুষের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্য আশ্রয় কেন্দ্র/বন্যা কবলিত এলাকায় পানি বিশুদ্ধকরন ট্যাবলেট, পানি বিশুদ্ধকরন পাউডার, হাইজিন কীট, বিøসিং পাউডার বিতরণ কার্যক্রম চলমান রেখেছেন। এছাড়াও বাড়ি বাড়ি গিয়ে টিউবওয়েল পরিদর্শন, টিউবওয়েল উচুকরন ও পানি বিশুদ্ধকরন ট্যাবলেট বিতরণ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন তারা।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) সকাল থেকে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম বীরগাও ইউনিয়নের বন্যায় ব্যাপক ক্ষতিগ্রাস্ত দুর্বাকান্দা, মৌখলা, উলারভিটা, ঠাকুরভোক, জয়সিদ্ধি, বড়মোহা সহ প্রতিটি গ্রামে মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পানি বিশুদ্ধকরন ট্যাবলেট, পানি বিশুদ্ধকরন পাউডার, হাইজিন কীট, বিøসিং পাউডার বিতরণ ও বেশ কিছু নলক‚প উচু করে মানুষের ব্যাবহার উপযোগি করেন উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের কর্মরত টীমের লোকজন।

এ মময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর কর্মরত আলী মর্তুজা, দীন ইসলাম, অমিতাভ দাশ ও সাজাউল করিম প্রমূখ।

এ ব্যাপারে উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী আব্দুর রব সরকার জানান, উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে এবং দুর্যোগ মোকাবেলায় ভবিষ্যতেও এ কার্যক্রম থাকবে। বাংলাদেশ সরকারের সেবাদান কার্যক্রমকে সফল করার জন্য দুর্যোগপূর্ণ পরিস্থিতিতেও আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছে। প্রতিদিনই আমরা দুর্গত মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে এই কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছি।