বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০ | ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

আহসানমারা সেতুর দক্ষিণে দেখার হাওরে হবে বিশ্ববিদ্যালয়

আহসানমারা সেতুর দক্ষিণে দেখার হাওরে হবে বিশ্ববিদ্যালয়



‘সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০২০’ এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন লাভ করেছে সংসদে। বুধবার সন্ধ্যায় এই বিল সংসদে পাস হয়। সুনামগঞ্জের সংসদ সদস্যগণ সংসদে বিশ^বিদ্যালয় আইন ২০২০‘এর সংশোধনী প্রস্তাব আনেন। এদিকে, এই প্রস্তাব পাসের পর দক্ষিণ সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জে আনন্দ মিছির করেছেন স্থানীয়রা।
সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল ইমন সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় তার ফেসবুক আইডিতে লিখেন, জেলা আওয়ামী লীগের ১৩ নভেম্বরের প্রস্তাব মোতাবেক সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় দেখার হাওরপাড়ে স্থাপিত হবে। ‘তিনি লিখেন সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক কর্তৃক আনিত সংশোধনী প্রস্তাব জাতীয় সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়েছে। তিনি মাননীয় সংসদ নেত্রী, হাওরবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা, মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপুমনি ও মাননীয় পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নানসহ সংশিষ্ট সকলকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানান।
পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নান এমপিও প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, আবারও আমাদের নেত্রী প্রমাণ করলেন তিনি হাওরের মানুষকে ভালবাসেন। তিনি জানান, আহসানমারা সেতুর দক্ষিণে দেখার হাওরপাড়ে বিশ^বিদ্যালয় হবে। তিনি শিক্ষামন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।
প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে সুনামগঞ্জ জেলায় একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের লক্ষ্যে ‘সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আইন’ এর খসড়া প্রণয়ন করা হয়।
খসড়া আইনের ওপর বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মতামত গ্রহণ করে গত বছরের ২২ আগস্ট মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় আইনের খসড়া চূড়ান্ত করা হয়। বুধবার সন্ধ্যায় এই বিশ^বিদ্যালয় আইনের বিল সংসদে পাস হয়।
প্রসঙ্গত. সুনামগঞ্জ জেলাবাসীর বহুদিনের দাবী সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের খসড়া আইন গত ৩১ ডিসেম্বর সোমবার মন্ত্রী পরিষদের সভায় নীতিগতভাবে অনুমোদন পায়। এরপর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৫ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী’র প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নানের নেতৃত্বে সুনামগঞ্জে বিশাল শোভাযাত্রা হয়।